শনিবার, ০৪ Jul ২০২০, ১২:২৭ অপরাহ্ন

কোভিড-১৯ আপডেটঃ
করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশে গত ২৪ ঘন্টায় ৪২ জনের মৃত্যু হয়েছে, এ নিয়ে ভাইরাসটি কেড়ে নিয়েছে ১৯৬৮ জনের প্রাণ। গত ২৪ ঘন্টায় নতুন শনাক্ত হয়েছেন ৩১১৪ জন। দেশে করোনা আক্রান্ত মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ১ লক্ষ ৫৬ হাজার ৩৯১ জনমোট সুস্থ হয়েছেন ৬৮ হাজার ৪৮ জন।
সর্বশেষ সংবাদ
বিএসএমএমইউ’তে কাল চালু হচ্ছে ৩৭০ বেডের করোনা সেন্টার বাংলাদেশের অধীনে আসতে চায় মেঘালয়ের ৪ গ্রাম! টেকনাফে পুলিশের সঙ্গে বন্দুক যুদ্ধে মাদক কারবারী নিহত, অস্ত্র-ইয়াবা উদ্ধার কক্সবাজারে অনলাইন কোরবানী পশু হাট গাজীপুরে আরও ৪২ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত করোনা থেকে সদ্য মুক্তিপ্রাপ্ত খুলনা জেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক আবু হোসেন বাবু গ্রেপ্তার করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা গেলেন খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা এম এ হক আশুলিয়ায় ভ্যানরিকশা চোর চক্রের ৩ সদস্যকে আটক পিরোজপুরে কর্মচারীকে ধর্ষণের অভিযোগে চিকিৎসক গ্রেপ্তার করোনায় আক্রান্ত হয়ে সকালে ছেলের মৃত্যু, ছেলের মৃত্যু শোক সইতে না পেরে বিকালে মায়ের মৃত্যু করোনায় কর্ম হারানো মানুষের সংখ্যা বাড়ছে প্রতিদিন, নতুন পেশার সন্ধানে মানুষ আসামি ধরতে গেলে সহযোগীদের গুলিতে আট পুলিশ সদস্য নিহত দেশে করোনায় গত ২৪ ঘন্টায় ৪২ জনের মৃত্যু, নতুন আক্রান্ত শনাক্ত ৩১১৪ জন ম্যাচ ফিক্সিং নিয়ে সাঙ্গাকারাকে জেরা, জেরা করা হবে জয়বর্ধনকেও বিশেষজ্ঞরা বলছেন ২৪ ঘণ্টার বুলেটিনে করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যায় গোঁজামিল!

ইয়ারপুর ইউপি চেয়ারম্যানের মেয়ের জামাতার নেতৃত্বে ৫ যুবলীগ কর্মীকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা। ছেলের শ্যালক উজ্জল ভুইয়া গ্রেফতার।

শেষ খবর (আশুলিয়া) প্রতিনিধিঃ 

আশুলিয়ার জামগড়া ছয়তলা এলাকা’য় ইয়ারপুর ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান সৈয়দ আহমেদ ভুইয়ার প্রথম পক্ষের ছেলে কথিত যুবলীগ নেতা সুমন ভুইয়া ও তার ভগ্নিপতি রুবেল আহমেদ এর নেতৃত্বের অবৈধ অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা আশুলিয়া থানা যুবলীগের কর্মীদের কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করেছে। এসময় তাদের হামলায় আহত হয়েছে অন্তত ৫ জন। এদের মধ্যে দুই জনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শনিবার ভোররাত তিনটার দিকে জামগড়ার বেরন এলাকার ক্রিয়েশন গার্মেন্টস এর সামনে এই হামলার ঘটনা ঘটেছে। এঘটনায় আহত রিপন মিয়ার স্ত্রী চায়না বেগম আশুলিয়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

এ ঘটনায় মামলায় বর্নিত ও এজাহারভুক্ত আসামী কথিত যুবলীগ নেতা সুমন ভুইয়ার শ্যালক, ইয়ারপুর ইউনিয়নের বেরন এলাকায় বিভিন্ন সময়ে নানা অপকর্মের দায়ে অভিযুক্ত, ঝুট সন্ত্রাসী উজ্জল ভুইয়া’কে গ্রেপ্তার করেছে আশুলিয়া থানা পুলিশ। শনিবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে আশুলিয়ার জামগড়া এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। এর আগে শুক্রবার রাতে রিপনকে কুপিয়ে জখম করে আটক উজ্জল’সহ অন্যান্ন দুর্বৃত্তরা। গ্রেফতার হওয়া উজ্জল ভূঁইয়া আশুলিয়ার জামগড়া এলাকার ভুইয়াপাড়ার মোঃ জহিরুল ভূইয়া ওরফে ঝরু ভুইয়ার ছেলে। সে নিজেকে আশুলিয়ার ইয়ারপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক বলে দাবী করে।

 

আহত যুবলীগ কর্মীর স্ত্রী চায়না বেগম (২৬) বাদী হয়ে ইয়ারপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের মেয়ের জামাই, আশুলিয়া থানা যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সুমন ভূইয়ার বোন জামাই মোঃ রুবেল আহম্মেদ (৩৮) কে প্রধান আসামী করে, জামগড়া ভূইয়াপাড়া এলাকার মোঃ জহিরুল ওরফে ঝরু ভূইয়ার ছেলে মোঃ উজ্জল ভূইয়া (৩৫), জসিম উদ্দিনের ছেলে নাজমুল হক ইমু (২২),মোল্লা বাজার এলাকার জালাল মোল্লার ছেলে ময়না মোল্লা (৩৫), মোঃ সম্রাট (৩০), তমিজ মীরের ছেলে সুমন মীরসহ (২৮) অজ্ঞাতনামা আরও  ৭/ ৮ জনকে আসামী করে থানায় মামলা দায়ের করেন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, আশুলিয়া থানা যুবলীগের ব্যানার ব্যবহার করে বিভিন্ন অপপ্রচার ও বিভিন্ন স্থানে ব্যানার ফেস্টুন ঝুঁলিয়ে যুবলীগের বিরুদ্ধে মানহানী মূলক কর্মকান্ড করে আসছিলো একটি কুচক্রিমহল। এ বিষয়ে আশুলিয়া থানা যুবলীগ সদস্য ও শিমুলিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক আমির হোসেন জয় থানায় একটি সাধারন ডায়েরী করেন। এরপর থানা যুবলীগের আহবায়ক কমিটি অপপ্রচারকৃত ব্যানার ফেস্টুন খুলে ফেলার সিদ্ধান্ত নেয়। শুক্রবার ভোরে ইয়ারপুর ও জামগড়া এলাকায় রিপন, ফারুক, শিপু, নয়ন ও বাবু একটি পিকআপ ভ্যানে করে ফেস্টুনগুলো খুলতে থাকে। তারা জামগড়া ছয়তলা এলাকার ক্রিয়েশন গার্মেন্টসের সামনে পৌঁছলে সন্ত্রাসী রুবেল ভূইয়া ও উজ্জল ভূইয়ার নেতৃত্বে ময়না মোল্লা, নাজমুল হক ইমু, সম্রাট, সুমন মীরসহ অজ্ঞাত ৭/ ৮ জন সন্ত্রাসী অতর্কিত হামলা করে। এসময় রুবেল ভূইয়া যুবলীগ কর্মী রিপনকে মাথায় কোপ দেয় তখন সে মাটিতে লুটিয়ে পড়লে আবারও তাকে লোহার হাতুড়ি দিয়ে পিটাতে থাকে এবং সাথে থাকা অন্য সন্ত্রাসীদেরকেও হুকুম দেয় রিপনকে কুপিয়ে টুকরা টুকরা করে ফেলতে। হুকুম পেয়ে সন্ত্রাসীরা রিপন ও বাবুকে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। এসময় তাদেরকে বাধাঁ দিতে গেলে ফারুক, শিপু ও নয়নকে মারপিট করে গুরুত্বর আহত করে। তাদের আত্নচিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে দূর্বত্তরা পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। এদের মধ্যে রিপনের অবস্থা আশংকা জনক।

গুরুতর আহত যুবলীগ কর্মী রিপন মিয়ার স্ত্রী বলেন, শুক্রবার রাতে ঝুট ব্যবসায়ী ও সন্ত্রসাী রুবেল আহম্মেদ ভূইয়া আমার স্বামী রিপনকে হত্যার উদ্দেশ্যে রামদা মাথায় কোপ দিলে তার মাথা কেটে মগজ বের হয়ে আসে এবং মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। এসময় রুবেল আহম্মেদ ভূইয়া তাকে পারা দিয়ে ধরে এবং উজ্জল ভূইয়া হাতুরী ও ব্যানারের পেরাকযুক্ত কাঠ দিয়ে পিটিয়ে রক্তাক্ত করে এবং অন্যান্যরা লোহার রড দিয়ে রিপনের দুই হাত ও সারা শরীর পিটিয়ে রক্তাক্ত করে।
এছাড়া ময়না মোল্লা রিপনের সঙ্গী বাবুকে চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে জখম করে এবং অন্যদেরকে রড ও হাতুরি দিয়ে পিটিয়ে রক্তাক্ত করে। পরে স্থানীয়দের সহযোগীতায় রিপন মিয়া ও বাবুকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাকীদেরকে বিভিন্ন ক্লিনিকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চত করে আশুলিয়া থানার এসআই শফিকুল ইসলাস সুমন বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে শনিবার সন্ধ্যার দিকে আশুলিয়ার জামগড়া এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে আশুলিয়া থানা যুবলীগের আহ্বায়ক কবির হোসেন সরকার বলেন, হামলাকারীরা এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী। তারা মাদক ব্যবসা,  ছিনতাই, ঝুট-সন্ত্রাস’সহ বিভিন্ন ধরনের অপকর্মের সাথে জড়িত। এর আগেও তাদের অপপ্রচারের বিষয়ে আশুলিয়া থানা যুবলীগের সদস্য ও শিমুলিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের আহ্বায়ক আমির হোসেন জয় আশুলিয়া থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেছেন। শুক্রবার রাতে সংগঠনের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী অপপ্রচারে ব্যবহৃত ব্যানার ফেস্টুন খুলে আনার সময় ইউপি চেয়ারম্যানের মেয়ের জামাতা রুবেল ও ছেলের শ্যালক উজ্জলের নেতৃত্বে আমার কর্মীদের কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। আমি এই ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত পূর্বক দোষীদের শাস্তির দাবি জানাই।

আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শফিকুল ইসলাম সুমন বলেন, যুবলীগ কর্মীদের মারধরের ঘটনায় আশুলিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঘটনার আহতদের’কে ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে এবং মামলার অন্যান্ন অভিযুক্ত আসামীদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানান তিনি।
উল্লেখ্য, এর আগেও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের মেয়ের জামাতা রুবেল আহম্মেদ ও ছেলের শ্যালক উজ্জ্বল ভুইয়ার বিরুদ্ধে ছাত্রলীগ নেতার ঝুটের ট্রাক ছিনতাই, সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের সম্পত্তি দখল, জোটবদ্ধ হয়ে প্রতিপক্ষ’কে মারধর, ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে চাঁদাবাজী, স্বর্ণের দোকানে ডাকাতি, প্রতিপক্ষকে হত্যা ও র‍্যাবের হাতে অবৈধ অস্ত্র’সহ আটকের মামলা’সহ আশুলিয়া থানা ও আশেপাশের অন্যান্ন থানায় একাধিক মামলা হয়েছে। কিন্তু স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের মেয়ের জামাতা ও ছেলের শ্যালক হওয়ার সুবাদে পুলিশ প্রশাসন প্রায়শঃই নিরব ছিলো।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

আর্কাইভ

SatSunMonTueWedThuFri
    123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728293031
       
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
282930    
       
22232425262728
2930     
       
    123
45678910
11121314151617
18192021222324
       

কপিরাইট © সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত(২০১৮-২০২০) ।। শেষ খবর

Design & Developed BY Hostitbd.Com